শনিবার, ১৩ই জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শনিবার, ১৩ই জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ শনিবার, ১৩ই জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি

ভালোবাসার অশ্রু এবং ফুলে বিদায় নিলেন সুবীর নন্দী

প্রভাতী ডেস্ক: বৈশাখের খরতাপে সবাইকে অঝোরে কাঁদিয়ে চির বিদায় নিলেন সুবীর নন্দী।
অসংখ্য কালজয়ী বাংলা গানের গায়ক সুবীর নন্দীকে ভালোবাসার অশ্রু এবং ফুলে বিদায় জানাল শিল্পী ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশিষ্টজনেরা। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একুশে পদকপ্রাপ্ত কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী সুবীর নন্দীর কফিনে ফুল দিয়ে তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সর্বস্তরের মানুষ। ঢল নামে সাধারন মানুষের। যার গান এতোদিন ছুঁয়েছে ভক্ত হৃদয়, আজ সেই শিল্পীর জন্য একবুক ভালোবাসা নিয়ে হাজির সুবীর ভক্তরা। এছাড়া
দেশসেরা এই শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানান মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতারা। ক্ল্যাসিক্যাল আধুনিক বাংলা গানে সুবীর নন্দীর শূণ্যতা কি পূরণ হবে? সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের পরিচালনায় বুধবার সকাল ১১টায় শহীদ মিনারে আনা হয় সুবীর নন্দীর মরদেহ। দুপুর ১২টা ২০ মিনিট পর্যন্ত চলে এ শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব। বাবার জন্য সবার কাছে আশীর্বাদ চান একমাত্র মেয়ে মৌ।

এর পরে দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটের দিকে সুবীর নন্দীর মরদেহ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনে (এফডিসিতে) নেওয়া হলে সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। তাঁর শেষ বিদায়ে কেউ চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি। সহকর্মীদের কান্নায় সিক্ত হয় সুবীর নন্দীর কফিন। এফডিসিতে শ্রদ্ধা জানাতে আসেন বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা। উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা আলমগীর, পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, সেক্রেটারি বদিউল আলম খোকন, চিত্রনায়ক ওমর সানি, জায়েদ খান এবং ড্যানি সিডাক প্রমুখ।

শ্রদ্ধা জানানোর পর সুবীর নন্দীর মরদেহ নেওয়া হয় চ্যানেল আই ভবনে। পরে রামকৃষ্ণ মিশনে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সবুজবাগ বরদেশ্বরী কালি মন্দিরে শেষকৃত্য হয় বৃষ্টির কাছ থেকে কাঁদতে শেখা সুবীর নন্দীর। ভারতীয় হাই কমিশনের পক্ষও থেকে জানানো হয় ফুলের শ্রদ্ধা।

সুবীর নন্দী ৭মে মঙ্গলবার ভোররাত সাড়ে চারটায় সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে হৃদরোগ জনিত কারণে মারা যান।  মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। গত ৩০ এপ্রিল থেকে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন। বুধবার সকাল ৬টা ৫০ মিনিটে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজে তাঁর মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। বিমানবন্দর থেকে তার মরদেহ রাজধানীর গ্রিন রোডের গ্রিন ভিউ অ্যাপার্টমেন্টের বাসায় নেয়া হয়।

নন্দিত কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী ৪০ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে গেয়েছেন আড়াই হাজারেরও বেশি গান। বেতার থেকে টেলিভিশন, তারপর চলচ্চিত্রেও উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান। ১৯৮১ সালে তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘সুবীর নন্দীর গান’ ডিসকো রেকর্ডিংয়ের ব্যানারে বাজারে আসে। তবে চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম গান করেন ১৯৭৬ সালে আব্দুস সামাদ পরিচালিত ‘সূর্যগ্রহণ’ চলচ্চিত্রে।

সুবীর নন্দীর মৃত্যুতে শোক জানান রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী,স্প্রীকার, বিরোধীদলীয় নেতা, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Telegram
WhatsApp
Email
Print